Breaking News

  • No posts were found

Literature

Back to homepage

দেয়াল

সুনীল বাবু লাঠি হাতে বাস থেকে নামলো। উত্তেজনায় তার আপাদমস্তক বাঁশ পাতার মত কাঁপছে। কাঁপা শরীরের সমস্তটা লাঠির উপর ভর করেছে। ঝাঁঝালো রোদে আকাশের দিকে চেয়ে এক নিশ্বাসে প্রাণ ভরে দম নেয় সে। দমের সাথে বিড়বিড় করে বলে, এটা আমার

Read More

Letter from Nawabjan to…

Oh dear you wrote my fate! My life is nothing but wait, Wait, wait and endless wait ‘Ye Nathi Hammari Quismat’ Not meeting you is my destiny! I was eager to have your words I have it, I spread it

Read More

কিছু কথা কিছু কবিতা

পরিবেশন করছি কুড়ি রেডিও এফ এম ৯৩.৭ দ্বারা সম্প্রচারিত এই অনুষ্ঠানটি (বিশিষ্ট কিছু শ্রোতা বন্ধুদের আনুরোধে যাহাদের উক্ত সম্প্রচার শোনা হয়ে ওঠেনি)। উদ্দেশ্য প্রবাসে বিলুপ্তপ্রায় এই শিল্পকে একটু আশার আলো দেখানো।

Read More

নতুনত্ব

সকাল সকাল চায়ের তেষ্টা পাগল করে দেয়। বাসি মুখে চা চড়িয়ে মুখে ব্রাশ গুজি। দক্ষিণের জানলাটা প্রায়ই খুলে রাখে টিপু। রাত করে জানলা খোলা রাখা মানে বিপদ। এই সেদিন পাঁচ তলার ফ্ল্যাট থেকে ডাকাতি হ’ল। এসব বললেও মাথায় থাকে না

Read More

অসম্পূর্ণ সকাল

সকালের চাক ভাঙ্গা রোদ গায়ে মাখতে বেলকুনিতে দাঁড়ালাম। সচরাচর এই সময়টায় আমি বেলকুনিতে দাঁড়িয়ে চায়ের সাথে প্রকৃতি পান করি। আমার হাতে ধরা রং চা থেকে বাঁক খাওয়া ধোঁয়া নাক স্পর্শ করে বিলীন হয়ে যায়। আমি গরম চা খেতে পারি না,

Read More

বিকেলের সেকেলে গল্পখানি

ঘুড়িটির সাথে সাথে বিকেলটি উড়ে উড়ে যায়। পুরনো এ ঢাকার বিকেল- কানে কানে শিস দিয়ে বলে, ঘাসফড়িং-এর মতো সবুজাভ নরম আলোয় ঘরে বসে থাকা বড় পাপ! আমি হাসি, বিকেলের রোদ চোখে মাখি; সোনালী সোনালী আলো- দ্রুত এসে, ভালোবেসে বড় বেশি

Read More

জ্বলে দীপ সন্ধ্যা আসে

­­­­­জ্বলে দীপ সন্ধ্যা আসে লক্ষ্মণ ভাণ্ডারী   আমাদের গাঁয়ে আছে ছোট ছোট মাঠ, কাজলা দিঘিতে আছে শান বাঁধা ঘাট। দিঘি পাড়ে বক বসে ছোট মাছ ধরে, পানকৌড়ি দেয় ডুব জলে ঝুপ করে।   প্রাচীন বটের ছায়ে বসে পাঠশালা, গ্রামমাঝে আছে

Read More

চাষীর চোখে আজ জল!

চাষীর চোখে আজ জল! লক্ষ্মণ ভাণ্ডারী   চাষীর চোখে আজ জল! পাঁচশো আর হাজার টাকার নোট হয়ে গেছে অচল। ঘরে নেই চাল, পড়েছে আকাল, ঘরে হাঁড়ি চড়ে নি আজ, বন্ধ বেচাকেনা, হয়ে গেছে দেনা, আছে পড়ে খেতের কাজ। সকাল হলে

Read More

আমার গাঁয়ে প্রভাত কালে

আমার গাঁয়ে প্রভাত কালে লক্ষ্মণ ভাণ্ডারী   আমার গাঁয়ে প্রভাত কালে, রোজ প্রভাত পাখিরা গাহে। পূব গগনে ওঠে সোনার রবি, অবিরত শীতল সমীর বহে।   পাঠশালে পড়ে ছোট শিশুরা, কাঁচা রাস্তায় গোরুগাড়ি চলে। গাঁয়ের জেলে মাছ ধরে রোজ জাল ফেলে

Read More

আমার গাঁয়ে রোজ প্রভাতবেলায়

আমার গাঁয়ে রোজ প্রভাতবেলায় লক্ষ্মণ ভাণ্ডারী   আমার গাঁয়ে রোজ প্রভাতবেলায়, বিহগেরা সব ডাকে তরুর শাখায়। মাঠে যায় সকালে চাষীরা সবাই, গোরুর গাড়ি চলে মেঠো রাস্তায়।   কাজলাদিঘির ঘোলা কালো জলে, পানকৌড়ি দেয় ডুব সকাল হলে। রাজহাঁসগুলো জলে সাঁতার কাটে,

Read More